বিকাল ৩:২২,   শনিবার,   ২০শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ,   ৫ই শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ,   ১৪ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি

জগন্নাথপুরে দু’পক্ষের সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ ৮, আটক ১২


জগন্নাথপুর প্রতিনিধি:
জগন্নাথপুর উপজেলার কলকলিয়া ইউনিয়নের নাদামপুর গ্রামে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দুপক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় কমপক্ষে ১৫ জন আহত হয়েছেন।
এর মধ্যে আটজনকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। এ ঘটনায় একজন ইউনিয়ন পরিষদ সদস্যসহ ১২ জনকে আটক করে পুলিশ এবং একটি লাইসেন্সকৃত বন্দুক উদ্ধার করে। গুলিবিদ্ধ আটজনকে জগন্নাথপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমকি চিকিৎসা শেষে উন্নত চিকিৎসার জন্য সিলেট ওসমানী মেডিকেল হাসপাতালে পাঠানো হয়।
পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, নাদামপুর গ্রামের যুক্তরাজ্য প্রবাসী সিরাজ মিয়ার সাথে একই গ্রামের বাসিন্দা নজির হোসেনের মধ্যে গ্রামের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছে। মঙ্গলবার গ্রামের এক ব্যক্তির চল্লিশ দিনের শিরনীতে সিরাজ মিয়ার সাথে নজির হোসেনের পক্ষের লোকজনের মধ্যে কথাকাটাকাটি হয়। যার জের ধরে দুপুরে নজির হোসেনের পক্ষের লোকজনের হাতে সিরাজ মিয়া লাঞ্ছিত হন। এরপর সিরাজ মিয়ার পক্ষের লোকজন বন্দুক দিয়ে এলোপাতাড়ি গুলি ছু্ড়ে। এতে কমপক্ষে ১৫ জন আহত হন।
আহতরা হলেন ফটিক মিয়া(৩৫), বিবিনুর বেগম (৫০), ফাতেমা বেগম (১৪), আব্দুল আলীম (৩০), হাফিজুর রহমান (২৫), মিটু মিয়া (২২), তাসলিমা (১৪), রুমেজ মিয়া (৩২)। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্হলে পৌঁছে একটি লাইসেন্সকৃত বন্দুক উদ্ধার ‌এবং ১২ জনকে আটক করে।
জগন্নাথপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরী বিভাগে চিকিৎসক শাহ আলম সিদ্দিকী জানান, গুলিবিদ্ধ আট জনকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। অপর আহতরা প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন।
জগন্নাথপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী জানান, সংঘর্ষের ঘটনায় একটি বন্দুক উদ্ধার ও ১২ জনকে আটক করা হয়েছে।