রাত ১:২০,   বৃহস্পতিবার,   ২৫শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ,   ৯ই শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ,   ১৮ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি

দ. সুনামগঞ্জে বন্যায় পানিবাহিত রোগের প্রাদুর্ভাব

দক্ষিণ সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি :
দক্ষিণ সুনামগঞ্জে বন্যা পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতি হয়েছে। ধীরে ধীরে নামতে শুরু করেছে পানি। টানা বৃষ্টি আর পাহাড়ি ঢলে সৃষ্ট তিন দফা বন্যার পানি নদী অববাহিকার চেয়ে ধীরগতিতে নামছে হাওরের নিম্নাঞ্চলে। তাই এখনও পানিবন্দি অবস্থায় রয়েছেন লাখো মানুষ। ঘরবাড়ি ছেড়ে আশ্রয়কেন্দ্র বা উঁচু স্থানে অবস্থান করছেন বন্যার্ত মানুষ।
এদিকে বন্যার পানি কমতে শুরু করায় স্বস্তি দেখা দিলেও বন্যাকবলিত এলাকায় বিশুদ্ধ পানির অভাব, মলমূত্র ও রাসায়নিকের কারণে পানিবাহিত রোগসহ দেখা দিয়েছে নানান রোগের প্রাদুর্ভাব। স্বাস্থ্যঝুঁকিতে রয়েছেন শিশুসহ পরিবারের বয়স্ক সদস্যরা। এছাড়াও বন্যার সময় পানিতে ডুবে ও সাপের কামড়ে থাকছে মৃত্যুর শঙ্কা। অনেক মানুষ এক সঙ্গে থাকার কারণে শ্বাসনালির প্রদাহ, ফ্লু, হাঁপানি, স্ক্যাবিস, ফুসকুড়ি, ফোঁড়া, মশাবাহিত রোগ বাড়ার প্রবণতা দেখা যাচ্ছে। বন্যাকবলিত এলাকায় প্রচুর পরিমাণে পানি বিশুদ্ধকরণ বড়ি, স্যালাইন সরবরাহ এবং জন্ডিস, টাইফয়েডসহ পানিবাহিত রোগ দমনে যথেষ্ট অ্যান্টিবায়োটিকের সরবরাহ করতে প্রয়োজনে ভ্রাম্যমাণ মেডিকেল সেবা প্রদান করা দরকার বলে জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।
উপজেলার পশ্চিম পাগলা ইউনিয়ন স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের উপ-সহকারী মেডিকেল অফিসার ডা. হুমায়ুন কবীর বলেন, ‘বন্যাকবলিত এলাকায় পানিবাহিত রোগের প্রাদুর্ভাব দেখা দেয় বেশি। শিশুরা ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয় বেশি। এক্ষেত্রে পানি বিশুদ্ধ করে পান করা, শিশুদের ময়লা পানি স্পর্শ না করানো, ময়লা পানিতে গোসল থেকে বিরত রাখা, পায়খানা থেকে আসার পর সাবান-পানি দিয়ে হাত ভালো করে ধৌতকরণ ও পাতলা পায়খানা হলে খাবার স্যালাইন খাওয়া প্রয়োজন।’
দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. জসিম উদ্দিন বলেন, ‘বন্যাকবলিত এলাকায় চিকিৎসাসেবা দিতে প্রতি ইউনিয়নের কমিউনিটি ক্লিনিকে মেডিকেল ক্যাম্প খোলা হয়েছে। সেখান থেকে খাবার স্যালাইন থেকে শুরু করে প্রাথমিক চিকিৎসা ও ওষুধ সংগ্রহ করা যাবে। অবস্থার অবনতি হলে রেফার নিয়ে উপজেলা হাসপাতাল ও জেলা শহরে চিকিৎসাসেবা নিতে পারবেন বন্যার্তরা।’
এছাড়াও উপজেলা পর্যায়ে কুইক রেসপন্স মেডিকেল টিমের মাধ্যমে উপজেলার প্রত্যেক ইউনিয়নে খাবার স্যালাইন ও পানি বিশুদ্ধকরণ ট্যাবলেট বিতরণ করা হচ্ছে এবং উপজেলা পর্যায়ে স্বাস্থ্যসেবা কমিটি গঠন করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।