সকাল ১১:৪৬,   সোমবার,   ২২শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ,   ৭ই শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ,   ১৫ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি

প্রবাসীর ছবি ব্যবহার করে ফেসবুক আইডি খুলে প্রতারণা, প্রতারক গ্রেফতার

দ. সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি :
দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলায় বিকাশের মাধ্যমে প্রতারণার মাধ্যমে বিপুল পরিমান টাকা আত্মসাতের অভিযোগে তথাকথিত অনলাইন সাংবাধিক প্রতারক জাকারিয়া আহমদ স্বাধীনকে গ্রেফতার করেছে দক্ষিণ সুনামগঞ্জ থানা পুলিশ। আটক জাকারিয়া আহমদ স্বাধীন উপজেলার আমদাবাজ গ্রামের আব্দুল আজিদ প্রকাশ আজিজের পুত্র।
পুলিশ ও অভিযোগে সূত্রে জানা যায়, দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলার আমদাবাজ গ্রামের মোঃ মজুদ মিয়ার ছেলে  হাছান মিয়া ২-৩ মাস পূর্বে ইউরোপে যাওয়ার উদ্দেশ্যে লেবানন থেকে সিরিয়ার উদ্দেশ্যে রওয়ানা করে। দীর্ঘদিন হাছানের সাথে তার পরিবারের লোকজনদের যোগাযোগ হচ্ছে না। বিষয়টি জানতে পেরে হাছানের আপন ফুফুত্ব ভাই জাকারিয়া আহমদ স্বাধীন ফেসবুকে প্রবাসী হাছানের ছবি ব্যবহার করে নকল আইডি খুলে। সেই আইডি থেকে হাছান সেজে প্রতারক জাকারিয়া আহমদ স্বাধীন হাছানের আপন মামার সাথে ফেসবুক ম্যাসেঞ্জারের মাধ্যমে যোগযোগ করতে থাকে এবং হাছান মিয়া দালালদের খপ্পরে পড়ে নির্যাতিত হচ্ছে বলে ম্যাসেজ পাঠাতে থাকে। এক পর্যায়ে মজুদ মিয়া তার ছেলে হাছান মিয়াকে দালালদের খপ্পর থেকে মুক্ত করতে চাইলে প্রতারক জাকারিয়া আহমদ স্বাধীন সুযোগ বুঝে তার স্ত্রী মনিরা আক্তার, শাশুড়ী বিলকিছ বেগম ও তার নিজের নামীয় বিকাশ নাম্বার মামা মোঃ মজুদ মিয়াকে পাঠায় এবং একাধিকবার যোগযোগ করে বিকাশ নাম্বারের মাধ্যমে প্রায় ৩ লক্ষ ৭০ হাজার টাকা  আত্মসাৎ করে নেয়। প্রতারণার বিষয়টি মজুদ মিয়া বুঝতে পেরে দক্ষিণ সুনামগঞ্জ থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্তে নামেন দক্ষিণ সুনামগঞ্জ থানা পুলিশের এসআই জহিরুল ইসলাম তালুকদার।
তদন্তে দক্ষিণ সুনামগঞ্জ থানা পুলিশের এসআই জহিরুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা পাওয়ায় গত বুধবার(২৯ জুলাই) থানা পুলিশের সদস্যদের নিয়ে অভিযান পরিচালনা করে প্রতারক জাকারিয়া আহমদ স্বাধীনকে আটক করেন।
বৃহস্পতিবার (৩০ জুলাই) আটক জাকরিয়া আহমদকে মামলার ঘটনায় আদালতে প্রেরণ করেন।
স্থানীয় এলাকাবাসীর অভিযোগ রয়েছে তথাকথিত অনলাইন সাংবাদিক জাকারিয়া আহমদ স্বাধীন দক্ষিণ সুনামগঞ্জ থানা এলাকার বিভিন্ন রবিদাস বাড়ী থেকে চোলাই মদ খাওয়া, চোলাই মদের ভাট্টা থেকে চাঁদা আদায়, জুয়া আসর থেকে চাঁদা আদায়ের নামে মাসোয়ারা আদায় করে আসছিল।
মামলার তদন্তকারী অফিসার মো. জহিরুল ইসলাম তালুকদার বলেন , কথিত অনলাইন সাংবাদিক জাকারিয়া আহমদ স্বাধীন একজন প্রতারক এবং ঠকবাজ। সে তার আপন মামা মজুদ মিয়ার দুর্বলতার সুযোগে মজুদ মিয়ার ছেলে সেজে প্রতারণার মাধ্যমে টাকা আত্মসাৎ করে। 
দক্ষিণ সুনামগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) কাজী মুক্তাদির হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জাকারিয়া আহমদ স্বাধীনের আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করেন।