বিকাল ৪:২৭,   শনিবার,   ২০শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ,   ৫ই শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ,   ১৪ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি

শামীমার সঙ্গে বাংলাদেশের কোনও সম্পর্ক নেই: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

নিউজ সুনামগঞ্জ ডেস্ক :
ইসলামিক স্টেটে (আইএস) যোগ দেওয়া শামীমা বেগমের সঙ্গে বাংলাদেশের কোনও সম্পর্ক নেই বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী একে আব্দুল মোমেন। শনিবার (৯ ফেব্রুয়ারি) রাজধানীর একটি হোটেলে প্রবাসী বাংলাদেশিদের সঙ্গে এক আলোচনা অনুষ্ঠানের পর সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে একথা বলেন তিনি।
মন্ত্রী বলেন, শামীমা বেগমের সঙ্গে আমাদের কোনও সম্পর্ক নেই। শামীমা যুক্তরাজ্যে জন্মগ্রহণ করেছেন। যুক্তরাজ্যে বড় হয়েছেন। কখনও বাংলাদেশের নাগরিকত্বের জন্য আবেদন করেননি। তার মা ব্রিটিশ নাগরিক ছিলেন। তিনি কোনওদিন বাংলাদেশের নাগরিকত্ব চাননি। তার বাবা বাংলাদেশি ছিলেন, পরে তিনি যুক্তরাজ্যের নাগরিক হন। শামীমার সঙ্গে আমাদের সম্পর্ক শুধু এটুকুই। তিনি আরও বলেন, যুক্তরাজ্য সরকার তাকে যদি নাগরিকত্ব না দেয় তবে তিনি একজন স্টেটলেস ব্যক্তি হবেন। এ জন্য যুক্তরাজ্যের সরকার তার ব্যবস্থা নেবে, এটি আমাদের বিষয় না।
প্রসঙ্গত ব্রিটিশ সরকার শামীমার নাগরিকত্ব বাতিল করলে আদালতে আপিল করেন তার আইনজীবী। সম্প্রতি তার ব্রিটিশ নাগরিকত্ব ফেরত দেওয়ার সেই আপিল আবেদনও খারিজ করে দিয়েছে দেশটির একটি বিশেষ আদালত।
বর্তমানে উত্তর সিরিয়ার ক্যাম্প রোজ শরণার্থী শিবিরে অবস্থান করনছে শামীমা। লন্ডনের বেথনেল গ্রিন অ্যাকাডেমি স্কুলের শিক্ষার্থী ছিলেন তিনি। ২০১৫ সালে দুই কিশোরীকে সঙ্গে নিয়ে আইএসে যোগ দিয়েছিলেন তিনি। পরিবারকে একদিনের জন্য বাইরে যাওয়া কথা বলে প্রথমে তুরস্ক যান শামীমা। সেখান থেকে সীমান্ত অতিক্রম করে সিরিয়ায় প্রবেশ করেন। এরপর নেদারল্যান্ডস থেকে সিরিয়ায় যাওয়া এক আইএস জঙ্গিকে বিয়ে করেছিলেন শামীমা।
দুইবার গর্ভপাতের পর সিরিয়ার শরণার্থী শিবিরে এক পুত্র সন্তানের জন্ম দেন তিনি। উদ্ধারের পর শামীমা আবারও যুক্তরাজ্যে ফেরার ইচ্ছা প্রকাশ করলেও তার ব্রিটিশ নাগরিকত্ব প্রত্যাহার করে নেয় যুক্তরাজ্য সরকার।