বিকাল ৪:১৬,   শনিবার,   ২০শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ,   ৫ই শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ,   ১৪ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি

জগন্নাথপুর প্রতিনিধি :
নেই লাইসেন্স। অথচ বিএসটিআই এর লোগো ব্যবহার করে বিভিন্ন খাদ্য সামগ্রীর বেকারির পণ্য উৎপাদন করে বাজারজাত করা হচ্ছিল।
বুধবার বিকেলে সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর পৌরশহরের ইকড়ছই এলাকায় একটি কারখানায় ভ্রাম্যমান আদালতের একটি টিম এমন চিত্র দেখতে পেয়ে একজনকে ৩০ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন।
জানা যায়, জগন্নাথপুর উপজেলা প্রশাসনের পক্ষে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জগন্নাথপুর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ইয়াসির আরাফাতের নেতৃত্বে একদল পুলিশের উপস্থিতিতে পৌরশহরের জগন্নাথপুর বাজারে ভেজাল বিরোধী অভিযান পরিচালিত হয়। অভিযানকালে শহরের ইকড়ছই এলাকায় ছায়ানীড় বেকারি নামক একটি খাদ্য সামগ্রীর তৈরীর ফ্যাক্টরীতে নোংরা, ময়লা, ভেজা, স্যাতসেতে পরিবেশে বিভিন্ন ধরনের কেক, বিস্কুটসহ বেকারি পণ্য উৎপাদন করা হচ্ছে। এসব তৈরীতে বিএসটিআই এর কোন লাইসেন্স পাওয়া যায়নি। তবে বিএসটিআইয়ের লোগো ব্যবহার করে বাজারজাত করা হচ্ছিল। এসব অভিযোগে বেকারির ম্যানেজার আলমগীর হোসেনকে ৩০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে ৩০ দিনের কারাদণ্ড প্রদান করা হয়। এছাড়া শহরের জগন্নাথপুর-সুনামগঞ্জ বাসস্ট্যান্ড এলাকায় ঢাকা বেকারি নামক আরেকটি ফ্যাক্টরীর মালিক হাবিবুর রহমান হাবিবকে বিএসটিআইয়ের লাইসেন্স ছাড়া অস্বাস্থকর নোংরা পরিবেশে বেকারি সামগ্রী উৎপাদন করায় ১৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। অভিযানকালে বিএসটিআই সিলেট অফিসের ফিল্ড অফিসার মো: মতিন উপস্থিত ছিলেন।
ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারক নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো: ইয়াসির আরাফাত অভিযানের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, দুইটি বেকারিকে ৪৫ হাজার টাকা অর্থদণ্ড প্রদান করা হয়েছে।