রাত ১০:৩১,   বৃহস্পতিবার,   ২৩শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ,   ৯ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ,   ১৫ই জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি

অপ্রয়োজনীয় বাঁধ নির্মাণ বন্ধের দাবিতে অক্ষয়নগর গ্রামবাসীর মানববন্ধন

স্টাফ রিপোর্টার :
সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার সুরমা ইউনিয়নের হুরাকান্দা থেকে অক্ষয়নগর গ্রাম পর্যন্ত অপ্রয়োজনীয় বাঁধ নির্মাণের প্রতিবাদের মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।
রোববার সকালে শহরের আলফাত স্কয়ার রোড এলাকায় অক্ষয়নগর গ্রামবাসীর আয়োজনে মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা মো. আব্দুর রউফ, বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. সোনার চাঁন, স্থানীয় বাসিন্দা সফর আলী, ফারুক মিয়া প্রমুখ।
মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, সুনামগঞ্জের বোরো ফসলের জন্য সরকার কোটি কোটি টাকা বরাদ্দ দিয়েছে। কিন্তু কিছু মানুষ সরকারের বরাদ্দকৃত টাকা দিয়ে হরিলুট তৈরি করে দিয়েছে। যেখানে বিন্দুমাত্র বাঁধের প্রয়োজন নেই সেখানেই ফসলরক্ষা বাঁধ নির্মাণ করা হচ্ছে। এ গ্রামের মানুষের জীবন জীবিকার প্রধান মাধ্যম কৃষি কাজ এবং আমন ধান চাষাবাদ করা হয়। কিন্তু এখানে যে উচু করে বাঁধ নির্মাণ করা হচ্ছে সেটি কৃষিকাজের ব্যহত হবে এবং আমন ধান চাষাবাদ করা যাবে না। প্রশাসন ও বাঁধ তৈরিতে সংশ্লিষ্টরা সেখানে কোনো বাঁধ নির্মাণ করে কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়ে যাচ্ছে। আমাদের দাবি কৃষকদের পেটে লাতি মেরে কোন কাজ করবে না। অনতিবিলম্বে চলমান বাঁধের কাজটি বন্ধ করার দাবি জানাই।
মানববন্ধন শেষে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে হুরাকান্দা থেকে অক্ষয়নগর গ্রাম পর্যন্ত আপ্রয়োজনী বেরীবাঁধ নির্মাণ বন্ধের দাবিতে জেলা প্রশাসক আব্দুল আহাদ বরাবর স্মারক লিপি প্রদান করা হয়।
স্মারক লিপিতে উল্লেখ্য, আমরা অক্ষয়নগর গ্রামবাসী শুরু থেকে হুরাকান্দা থেকেই হুরাকান্দা থেকে অক্ষয়নগর মৌজা পর্যন্ত অপ্রয়োজনীয় বেরীবাঁধ নির্মাণ বন্ধের আবেদন করে আসছি। আপনি জেনে থাকবেন যে, অক্ষয়নগর মৌজা হল দুই ফসলী অমন জমি, এখানে বোরো জমি নাই, তাই এখানে বেরীবাঁধ নির্মাণ অপ্রয়োজনীয়। এই অপ্রয়োজনীয় বেরীবাঁধটি নির্মাণ হলে এই অঞ্চলের দুই ফসলী জমিতে দীর্ঘমেয়াদি জলাবদ্ধতা দেখা দিবে এবং পাহাড়ী ঢলে অক্ষয়নগর গ্রাম তলিয়ে যাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।