সকাল ১১:৪৪,   সোমবার,   ২৭শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ,   ১৩ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ,   ১৮ই জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি

করোনায় বিপাকে দ. সুনামগঞ্জের ডেকোরেটর্স মালিক-শ্রমিকরা

নোহান আরেফিন নেওয়াজ :
করোনা পরিস্থিতিতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সব কিছু সীমিত আকারে চললেও বিপাকে রয়েছে দক্ষিণ সুনামগঞ্জের ডেকোরেটর্স ব্যবসায় সংশ্লিষ্টরা। জনসমাগম এড়িয়ে চলা এবং সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিতকরণে সভা-সমাবেশ, ওয়াজ মাহফিল, সাংস্কৃতিক, সংবর্ধনা ও ভোজন অনুষ্ঠানসহ সব রকমের কর্মসূচী বন্ধ থাকায় গত তিনমাস থেকে দিন ভালো যাচ্ছেনা ডেকোরেটর মালিক ও শ্রমিকদের। ব্যবসা সচল না থাকায় দোকান ভাড়া আর শ্রমিকদের নিয়ে হিমশিম খেতে হচ্ছে এ উপজেলার ব্যবসায়ীদের।
অপরদিকে, কর্মহীন হয়ে পড়া শতাধিক ডেকোরেটর মালিক, শ্রমিক পরিবার-পরিজন নিয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছেন। এখন পর্যন্ত অনেকেই পাননি কোন সরকারি সহায়তা। এমনকি প্রধানমন্ত্রীর প্রণোদনার আড়াই হাজার টাকাও। উপজেলার ডেকোরেটর মালিক-শ্রমিকরা জানান, তাদের পক্ষ থেকে সহায়তা চেয়ে স্থানীয় প্রশাসন বরাবর আবেদন করবেন।
দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলার পাগলা বাজারের ডেকোরেটর শ্রমিক সুরোজ আলী বলেন, ‘প্রায় তিন মাস থেকে কাজ নেই, নেই আয় রোজগারও। তাই অভাব অনটনের মধ্যে জীবন যাচ্ছে। জানিনা, আর কত দিন এভাবে চলবো।’
উপজেলা সদর শান্তিগন্জ বাজারের ডেকোরেটর ব্যবসায়ী আনোয়ার হোসেন বলেন, ‘সব কিছুই আগের মত সচল হলেও আমাদের কর্মের প্রাণ ফিরে পেতে কত সময় লাগবে জানিনা। কিন্তু ততদিন পর্যন্ত কর্মহীন এই শ্রমিকদের দায়িত্ব কে নিবে? সামনের দিনগুলো পরিবার-পরিজন নিয়ে কিভাবে চলবো?’
দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলার পাগলা বাজারের আঁখি ডেকোরেটর্সের স্বত্বাধিকারী মকবুল হোসেন বলেন, ‘সব ব্যবসা প্রতিষ্ঠানই আগের মত চলতেছে। বিধিবাম ডেকোরেটর ব্যবসায়। চলমান পরিস্থিতিতে ডেকোরেটর সংশ্লিষ্টদের দিকে স্হানীয় প্রশাসন কর্তৃপক্ষের যথাযথ সুনজর কামনা করছি।’
এ বিষয়ে জানতে চাইলে দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফারুক আহমদ বলেন, এই বিষয়টি আমাদের চিন্তায় আছে পরবর্তীতে সরকারী কোন প্রনোদনা আসলে তাদের বিষয়টা বিবেচনায় থাকবে।