রাত ৮:৫৩,   বৃহস্পতিবার,   ২৩শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ,   ৯ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ,   ১৫ই জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি

তাহিরপুরে বিশ্ব আদিবাসী দিবসে অধিকার বাস্তবায়নের দাবি

তাহিরপুর প্রতিনিধি :
‘করোনা মহামারিতে আদিবাসীদের জীবন-জীবিকার সংগ্রাম’ প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে সুনামগঞ্জের তাহিরপুর সীমান্তে নানা আয়োজনের মধ্যদিয়ে আন্তর্জাতিক আদিবাসী দিবস পালিত হয়েছে।
এ উপলক্ষে আজ রোববার (৯ আগস্ট) সকালে উপজেলার বড়দল (উত্তর) ইউনিয়নের বড়গোফটিলা গারো আদিবাসী ফুটবল মাঠে আলোচনা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।
অনুষ্ঠানে ক্ষুদ্র নৃতাত্ত্বিক জনগোষ্ঠীর নেতারা সুরক্ষা ও অধিকার বাস্তবায়নের দাবি জানান। পাশাপাশি করোনা মহামারিতে সারাদেশে কর্মহীন আদিবাসীদের সহায়তারও দাবি জানান।
কড়ইগড়া বড়গোফ গারো আদিবাসী যুবসংঘ আয়োজিত সুনীল দাজেলের সভাপতিত্বে ও সুলভ দিব্রার সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় বক্তব্য দেন, গ্রাম মোড়ল রমেশ সলোমার, সাবেক ট্রাইবাল চেয়ারম্যান পরিতোষ চাম্বুগং, সাবেক ট্রাইবাল সেক্রেটারি যতীন্দ্র রাকসাম, সিনটের সেক্রেটারি শঙ্কর মারাক, রবার্ট আরেং, সুধীর দিব্রা, লুলেন্দ্র দাজেল, জন রবার্ট চাম্বুগং, স্বপন দিও, টমাস মাজি, আবলুক দিও, স্লিপ চিশিম, স্বপন চিশিম, প্রজেকশন মানকিন, মাধবী দিব্রা, শিক্ষিকা দীপালী দিব্রা, নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র অনাশীষ দিব্রা প্রমুখ।
বক্তারা বলেন, আমরা আদিবাসী। কিন্তু আমাদেরকে ক্ষুদ্র নৃতাত্ত্বিক জনগোষ্ঠী হিসেবে আখ্যায়িত করা হয়। আমরা নানাভাবে নিপীড়িত হচ্ছি। ভূমি সমস্যার অনেকে বাস্তুচ্যুত হতে হচ্ছে। আমাদের জীবন-জীবিকা নানামুখী সংকটে পতিত। আমরা আমাদের ন্যায্যতা, অধিকার ও সুরক্ষার দাবি জানাই।
তারা আরও বলেন, আমরা স্বাধীন বাংলাদেশের সার্বভৌমত্ব মেনে এদেশের কৃষ্টি ও কালচার ধারণ করি। একই সঙ্গে আমাদের নিজস্ব সংস্কৃতিকেও লালন করি। কিন্তু রাষ্ট্র ও সরকার কর্তৃক আমরা নানাভাবে এখনও উপেক্ষার স্বীকার।
বক্তারা বাঙালি আদিবাসীদের পারস্পরিক সম্পর্ক ও বিশ্বাস বজায় রেখে চলারও আহ্বান জানান।
করোনা মহামারিতে কর্ম হারানো আদিবাসীরা এখন নতুন সংকটে পড়েছেন উল্লেখ করে বক্তারা বলেন, আমাদের পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীকে সরকারি সহায়তায় নিয়ে আসতে হবে।
আলোচনা সভা শেষে ক্ষুদ্র নৃতাত্ত্বিক জনগোষ্ঠীর নৃত্যশিল্পী বর্ণালি দিব্রা, ইতিকনা দিব্রা, তিলোত্তমা দিব্রা ও রুপা দিব্রা সংগীত পরিবেশন করেন।