রাত ৯:৪৯,   বৃহস্পতিবার,   ২৩শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ,   ৯ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ,   ১৫ই জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি

মধ্যনগর থানা আ.লীগের ঘোষিত কমিটি বাতিলের দাবি

ধর্মপাশা প্রতিনিধি :
সুনামগঞ্জের ধর্মপাশা উপজেলার মধ্যনগর থানা আওয়ামী লীগের ঘোষিত কমিটি বাতিলের দাবি জানিয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছেন মধ্যনগর থানা আওয়ামী লীগের একাংশের নেতাকর্মীরা।
শনিবার (৭ মার্চ) বিকেলে মধ্যনগর আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয়ে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। এতে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন মধ্যনগর থানা আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক কুতুব উদ্দিন তালুকদার।
জানা যায়, গত বছরের ৮ নভেম্বর জেলা আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দের উপস্থিতিতে মধ্যনগর থানা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। ওইদিন কমিটি ঘোষণা ছাড়াই জেলা কমিটির নেতৃবৃন্দ সম্মেলন মঞ্চ ত্যাগ করেন। পরে ২৩ নভেম্বর সভাপতি হিসেবে গিয়াস উদ্দিন নূরী ও সাধারণ সম্পাদক হিসেবে পরিতোষ সরকারের নাম ঘোষণা করা হয়। এ ঘোষণার পর গিয়াস উদ্দিন নূরী ও পরিতোষ সরকারের বিরোধী পক্ষ মধ্যনগর বাজারে প্রতিবাদ জানিয়ে ঝাড়ু মিছিল করে। সম্মেলনের দুইদিন আগে কুতুব উদ্দিন তালুকদার সমর্থিত স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে গঠনতন্ত্র অনুযায়ী ত্যাগী নেতাকর্মীদের দিয়ে কমিটি ঘোষণা করার জন্য দাবি তুলছিলেন। গত ২৮ ফেব্রুয়ারি ৭১ সদস্য বিশিষ্ট মধ্যনগর থানা আওয়ামী লীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করে জেলা আওয়ামী লীগ। পরে গত শুক্রবার জেলা কমিটি মধ্যনগর থানা আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের কাছে কমিটি হস্তান্তর করে। এর ফলে অপরাংশের নেতাকর্মীদের মধ্যে তীব্র ক্ষোভ দেখা দিয়েছে।
লিখিত বক্তব্যে কুতুব উদ্দিন বলেন, মধ্যনগর থানা কমিটিতে শেখ মোহাম্মদ আলী হোসেনকে পদ দিবেন বলে সভাপতি গিয়াস উদ্দিন নূরী ও সাধারণ সম্পাদক পরিতোষ সরকার টাকা দাবি করেছিলেন বলে উল্লেখ্য করা হয়। এছাড়াও এই কমিটিতে সভাপতির আপন চাচাতো ভাইকে যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও আপন ভাতিজি জামাইকে সাংগঠনিক সম্পাদক করা হয়েছে বলে লিখিত বক্তব্যে জানানো হয়েছে।
এসময় সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, মধ্যনগর থানা আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক রুহুল আমিন খান, আওয়ামী লীগ নেতা মো. জহিরুল হক, আ. শহীদ আজাদ, মোস্তফা কামাল হোসেন, শেখ মোহাম্মদ আলী হোসেন,গোপেশ চন্দ্র সরকার, রফিকুল ইসলাম, শফিকুল ইসলাম, বর্তমান কমিটির সদস্য ৩৯ নং সদস্য সিরাজুল ইসলাম বাবুল, ৬১নং সদস্য মো. তারা মিয়া, থানা ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুব আলম মঞ্জু প্রমুখ।
কুতুব উদ্দিন তালুকদার বলেন, ‘ত্যাগী নেতাকর্মীদের বাদ দিয়ে অরাজনৈতিক, অনুপ্রবেশকারী ও নেশাসক্ত ব্যক্তিদের সমন্বয়ে আত্মীয়করণের মাধ্যমে কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। তাই এ কমিটি বাতিলের দাবি জানাই।’
মধ্যনগর থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক পরিতোষ সরকার বলেন, ‘জেলা আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ যাচাই-বাছাই করে ৭১ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি অনুমোদন দিয়েছেন। এখন যারা বিরোধিতা করছেন তারাও কমিটিতে স্থান পাওয়ার জন্য বিগত দিনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছেন। কমিটিতে স্থান না পাওয়ায় এখন তারা রাজনৈতিক শিষ্টাচার বহির্ভূত কথাবার্তা বলে বেড়াচ্ছেন। আমাকে মাদকসেবী আখ্যায়িত করে মিথ্যা অপবাদ রটানো হচ্ছে। আমি এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা নিবো।’