রাত ১০:১৩,   বৃহস্পতিবার,   ২৩শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ,   ৯ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ,   ১৫ই জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি

শহরের তেঘরিয়া এলাকায় অগ্নিকাণ্ডে ৪টি ঘর পুড়ে ছাই

স্টাফ রিপোর্টার :
সুনামগঞ্জ শহরের তেঘরিয়া (লম্বা হাটি) এলাকায় আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে গেছে দুইটি ঘর। একই সাথে আরও দুটি ঘর অর্ধেক পুড়ে গেছে।
শনিবার (১৮ এপ্রিল) রাতে এ অগ্নিকাণ্ডে ঘটনা ঘটে।
সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, ওই এলাকার সিরাজ উদ্দিন ও বাহাউদ্দিনের ঘর পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। কিছুই আর অবশিষ্ট বাকি নেই। ঘরে থাকা সেলাইর মেশিন, নগদ ৪০ হাজার টাকা আসবাবপত্র ও একভরি স্বর্ণসহ ঘরের সব টিন পুড়ে গেছে। বর্তমানে ওই পরিবারের লোকজন খোলা আকাশের নিচে বসবাস করছেন। এছাড়াও পার্শ্ববর্তী মিলি বেগম ও আলাউদ্দিনের ঘর আংশিক পুড়ে গেছে।
আগুন লাগার পর খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আসে। কীভাবে আগুনের সূত্রপাত হল তা সুনির্দিষ্ট করে কেউ কিছু বলতে পারছে না। আগুনের পরিমাণ বেশি হওয়ার কারণে কোনও প্রকার মালামাল সরাতে পারে নি ওই ঘরগুলোর বাসিন্দারা। সব কিছুই নিঃশেষ হয়ে গেছে আগুনে। এখন মাথা গোজার ঠাইটুকু পর্যন্ত নেই অসহায় মানুষগুলোর।
অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্ত জুসেফ মিয়া বলেন, আমি একটি দোকানে কাজ করি। আমার বাবা পানির লাইন মেরামতের কাজ করেন। বর্তমানে দোকানপাট বন্ধ থাকার কারণে আমার আয় রোজগার নেই। কিছু টাকা জমা ছিল সেগুলোও আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। কিছু দিন আগে আমার বোনের বিয়ে হয়ে ছিল। সে আমাদের এখানে বেড়াতে এসেছিল। করোনা সংকটের কারণে আর যেতে পারে নি। ঘরে তার স্বর্ণও পুড়ে গেছে। কি করবো বুঝতে পারছি না। খাবার মতো কিছুই নাই এখন। অন্যের সাহায্য ছাড়া চলতে পারব না।